২০১৪ সালে সিটিজি ডাবল হত্যা: বিচারিক বিলম্বের কারণে অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজকে তলব করেছেন হাইকোর্ট

0
64



ডাবল হত্যার মামলার বিচারকাজ গত ছয় বছরে কেন শেষ হয়নি, তা বোঝাতে আগামী বছরের 12 জানুয়ারিতে চাটগ্রাম সম্পর্কিত সংশ্লিষ্ট অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজকে তলব করা হয়েছে হাইকোর্ট।

অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজকে মামলার সংশ্লিষ্ট নথিপত্র সহ বিচারপতি এম এনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মোঃ মোস্তাফিজুর রহমানের এইচসি বেঞ্চে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

জামিন চেয়ে মামলার আটক আসামি মোঃ মনিরের করা আবেদনের শুনানি চলাকালীন বেঞ্চ এই আদেশ নিয়ে আসে।

মামলার জবানবন্দি ও জামিনের আবেদনের বরাত দিয়ে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সরোয়ার হোসেন বাপ্পি ডেইলি স্টারকে বলেছিলেন যে ৪ মে, ২০১৪ সালে চাটোগ্রামের মাঝিরগাট এলাকার আবাসিক হোটেল আকাশে এক মহিলাকে ধর্ষণ করে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছিল। একই অবস্থায় একজন হাবিবকে হত্যা করা হয়েছিল ঘটনা।

হত্যার ঘটনায় পরদিন কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছিল।

এই মামলায় পুলিশ ২০১৪ সালের ১ জুন মোঃ মনিরকে গ্রেপ্তার করে। তিনি অন্যান্য আসামি – বাবলু, বেলাল, খোরশেদ, বাচা, বাহার, জহির ও হাবিবকেও জড়িত জড়িত সম্পর্কিত জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটকে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছিলেন।

মনির জামিনের আবেদনের শুনানি চলাকালীন ২৩ শে অক্টোবর, ২০১ on এ বিচারপতি এম এনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বে এইচসি বেঞ্চ সংশ্লিষ্ট ন্যূনতম আদালতকে উপলভ্য নথি এবং প্রমাণের ভিত্তিতে ছয় মাসের মধ্যে মামলার বিচার কার্যক্রম শেষ করার জন্য সংশ্লিষ্ট নিম্ন আদালতকে নির্দেশ দিয়েছে।

বিচার আদালত বিচারকাজ শেষ না করায় হাইকোর্ট এই বিষয়ে 2 অক্টোবর, 2018 এ এর ​​কাছে ব্যাখ্যা চেয়েছিলেন।

২৯ নভেম্বর, ২০১৮, এইচসি বেঞ্চ আবার সম্পর্কিত বিচার আদালতকে ৩১ শে মার্চ, 2019 এর মধ্যে বিচারের কার্যক্রম শেষ করার নির্দেশ দিয়েছে।

অভিযুক্ত মনিরের আইনজীবী মোঃ শহিদুল ইসলাম মনিরের জামিন চেয়ে হাইকোর্ট বেঞ্চের কাছে আজ আরেকটি আবেদন করেন।



LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here