মুন্সিগঞ্জে ‘খুনের পরে ছেলের লাশ পুকুরে ফেলে দেওয়ার’ জন্য বাবা-মা কন্যাকে আটক করা হয়েছে

0
14



মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া উপজেলায় একটি কিশোর ছেলের লাশ পুকুরে ফেলে দেওয়ার অভিযোগে পুলিশ বিবাহিত দম্পতিকে গ্রেপ্তার করেছে।

গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ রইস উদ্দিন জানান, আজ সকালে পুলিশ একটি হোসেন্ডি বাজার এলাকা থেকে মোঃ শামীম শিকদার (৪০), হাসিনা বেগম (৩৮) ও তাদের ১৫ বছরের মেয়েকে আটক করেছে।

ওসির বরাত দিয়ে মুন্সীগঞ্জের এক সংবাদদাতা জানিয়েছেন, তাদের আগামীকাল জেলা আদালতে হাজির করা হবে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ চলাকালীন সমস্ত গ্রেপ্তারকৃতরা মোঃ হাসান মিয়া (১ 17) নামে এক শিশুকে হত্যা করার কথা স্বীকার করেছে।

ওসি জানিয়েছে, গতকাল সকালে তার পরিবারের সদস্যরা তাকে হত্যা করে এবং লাশটি বাড়ির পাশের একটি পুকুরে ফেলে দিয়েছিল বলে পুলিশ গতকাল সকালে হাসানের মৃতদেহটি উদ্ধার করেছে।

ওসি জানান, পুকুর থেকে তীব্র গন্ধ বের হচ্ছে বলে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জানায় পরিবারের সদস্যরা।

ওসি রইস উদ্দিন আরও বলেন, হাসান মাদকসেবী ছিল এবং ঘটনার দিন রাতে তার ১৫ বছর বয়সী বোনকে ধর্ষণ করার চেষ্টা করেছিল। তার চিৎকার শুনে হাসানের বাবা ও মা তাকে মারধর শুরু করে। একপর্যায়ে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান।

পরে পরিবারের সদস্যরা লাশটি বাড়ির পাশের একটি পুকুরে ফেলে দেন, ওসি জানান।

নিহত হাসানের ছোট ভাই গাজারিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন, এই পুলিশ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, হাসানের ভাইকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পরে পুলিশ হত্যার পিছনে ঘটনাটি উদঘাটন করতে সক্ষম হয়।



LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here