ভাসান চরে যাওয়ার পথে আরও ১,7766 জন রোহিঙ্গা

0
37



কক্সবাজারের ক্যাম্প থেকে আজ মহিলা ও শিশুসহ মোট ১,77 .6 রোহিঙ্গা দ্বিতীয় পর্বে ভাসান চরে যাচ্ছেন।

রোহিঙ্গা নৌযান চালক ও উখিয়ার একটি শিবিরের বাসিন্দা নূর মোহাম্মদ জানান, তারা আজ তিন গ্রুপে ৪৩ টি বাসে স্বেচ্ছায় চাটোগ্রামের উদ্দেশ্যে উখিয়া ছেড়ে গেছে।

তিনি বলেন, যারা স্বেচ্ছায় যেতে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন কেবল তাদের ভাসান চরে নেওয়া হবে, তিনি বলেছিলেন।

রোহিঙ্গাদের আজ চাটোগ্রামের পতেঙ্গার বিএএফ শাহীন কলেজে রাখা হবে এবং আগামীকাল সকাল দশটার দিকে ভাসান চরে নিয়ে যাওয়া হবে, আমাদের কক্সবাজার সংবাদদাতা সূত্রের বরাত দিয়ে জানিয়েছে।

কলেজের গেটের দোকানদার আবুল কালাম জানান, রোহিঙ্গাদের প্রথম দলটি কঠোর নিরাপত্তায় সকাল ১১:৩০ মিনিটে উখিয়া ডিগ্রি কলেজ মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী ট্রানজিট পয়েন্ট থেকে চাটোগ্রামের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়েছিল। দ্বিতীয় গ্রুপটি দুপুর ২:২০ মিনিটে ১ 17 টি বাসে ট্রানজিট পয়েন্ট ছেড়ে যায় এবং তৃতীয় গ্রুপটি ১৩ টা বাসে সন্ধ্যা :15 টা ১৫ মিনিটে ছেড়ে যায়।

উখিয়া ডিগ্রি কলেজ এলাকার নিকটস্থ স্থানীয়রা জানান, গতকাল রাতে আইন প্রয়োগের উপস্থিতিতে সরকারি কর্মচারী ও এনজিও কর্মীরা টেকনাফ এবং উখিয়ার কুতুপালংয়ের বিভিন্ন ক্যাম্প থেকে রোহিঙ্গাদের অস্থায়ী ট্রানজিট পয়েন্টে নিয়ে আসেন।

অস্থায়ী ট্রানজিট পয়েন্টে কর্মকর্তারা রোহিঙ্গাদের বিভিন্ন ইস্যুতে ব্রিফ করেন এবং তাদের সকালে প্রাতঃরাশে পরিবেশন করেন। তারপরে, 20 টি ট্রাকে তাদের জিনিসপত্র বোঝাই করা হয়েছিল, স্থানীয়রা জানিয়েছে।

৪ ডিসেম্বর প্রথম পর্যায়ে ১,64৪২ জন রোহিঙ্গাকে ভাসান চরে নিয়ে যাওয়া হয়। এ ছাড়া মালয়েশিয়ায় যাওয়ার পথে উপকূলে আটকা পড়ে থাকা ৩ শতাধিক রোহিঙ্গাকে আগে ভাসান চরে প্রেরণ করা হয়েছিল।



LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here