বগুড়া মন্দির চত্বরে অভিযুক্ত অপরাধী মো

0
41



আজ ভোরে বগুড়া সদর উপজেলার একটি মন্দির চত্বরে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, দু’দল অপরাধীর মধ্যে ঝগড়া হত্যার কারণ ঘটায়।

নিহত সুব্রত ওরফে সম্রাট দাশ (২ 27) বগুড়া সদরের সবগ্রাম গ্রামের কালীপদ দাশের ছেলে।

সকাল ১১ টার দিকে সবগ্রাম বাজার এলাকার দুর্গা মন্দিরের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

সম্রাট মোটর সাইকেল নিয়ে এলাকা পার হচ্ছিল, কমপক্ষে পাঁচ-ছয়জন লোক তাকে পিছন থেকে বাঁশের লাঠি ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে আক্রমণ করে, আমাদের সংবাদদাতা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ হুমায়ুন কবিরের বরাত দিয়ে জানিয়েছেন।

সম্রাট মন্দিরের আড়ালে লুকানোর চেষ্টা করেছিলেন। তবে লোকেরা তাকে খুঁজে পেয়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে আক্রমণ করে এবং ঘটনাস্থলেই তাকে হত্যা করে বলে ওসি জানিয়েছেন।

সম্রাটের বিরুদ্ধে হত্যা, অস্ত্র দখল ও ডাকাতির অভিযোগে বিভিন্ন থানায় চারটি মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছেন বগুড়া পুলিশ সুপার আলী আশরাফ ভূঁইয়া।

সাম্রত কিছুদিন আগে জামিনে মুক্তি পেয়েছিল।

এসপি আলী আশরাফ বলেন, “আমি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আমরা যে দলটি হত্যার ঘটনাটি ঘটিয়েছিলাম তা চিহ্নিত করেছি।”

স্থানীয়রা জানান, সম্রাট অতীতে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের স্থানীয় ইউনিটের কর্মী ছিলেন। ২০১১ সালে তিনি যুবলীগের ইউনিয়ন ইউনিটে যোগ দিয়েছিলেন।

বগুড়া জেলা যুবলীগ শাখার সভাপতি শুভাশীষ পোদ্দার লিটনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, যুবলীগ নেতা মানিক হত্যা মামলার মূল অভিযুক্ত সম্রাট।

তিনি বলেন, “যুবলীগের সাথে তার কোনও সম্পৃক্ততা ছিল না।”



LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here