অবৈধ টোল আদায়ের বিষয়ে পৌর মেয়র ও উজ চেয়ারম্যানের পুরুষরা মুখোমুখি

0
14



পৌর মেয়র ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যানের সমর্থকরা শহরের সিএনজিচালিত অটোরিকশা স্ট্যান্ডে অবৈধ টোল আদায়ের বিষয়ে মুখোমুখি হওয়ায় হবিগঞ্জ শহরে উত্তেজনা চলছে।

স্থানীয়রা জানান, গত কয়েক দিন ধরে মেয়র মিজানুর রহমান ও হবিগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোতাছিরুল ইসলামের সমর্থকরা একে অপরকে চাঁদাবাজির উদ্দেশ্যে সম্বোধন করে মিছিল ও সমাবেশ করে আসছেন। ফলস্বরূপ, যে কোনও সময় রক্তাক্ত সংঘর্ষের ঝুঁকি রয়েছে।

২ অক্টোবর হবিগঞ্জ শহরের মুক্তিযোদ্ধা চত্তরের মূল সড়ক অবরোধ করে অটোরিকশা শ্রমিকরা।

শ্রমিকদের অভিযোগ, পৌরসভার মেয়র অটোরিকশা স্ট্যান্ডে টাকা দাবি করে আসছেন। চাঁদাবাজি বন্ধে তারা পুলিশ প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন।

পৌর আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর জানান, তিনি হবিগঞ্জ অটোরিকশা মালিক সমিতির সাথে জড়িত নন।

তিনি আরও জানান, চাঁদাবাজির সাথে সমিতির সভাপতি মোতাছিরুল ইসলাম জড়িত।

এর আগে রবিবার হবিগঞ্জ পৌরসভার কর্মীরা মেয়রের বিরুদ্ধে ‘মিথ্যা’ অভিযোগের প্রতিবাদে সকাল ১১ টা থেকে দুপুর ১ টা পর্যন্ত ধর্মঘটে যান।

এদিকে সোমবার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সমর্থকরা তার বিরুদ্ধে অপপ্রচারের প্রতিবাদে শহরে মিছিল বের করে। পরে মেয়রের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি জমা দেওয়া হয়।

মেয়র মিজান জানান, প্রতি মাসে সিএনজি অটো স্ট্যান্ড থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ আমদানি করা হচ্ছে। অটোরিকশার মালিক ও শ্রমিকদের টাকা না দেওয়ার অনুরোধ করায় মোতাছিরুল ইসলাম ও তার লোকজন তার বিরুদ্ধে মিছিল বের করেছে।

পৌর আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাছিরুল ইসলাম বলেন, “আমি সিলেট বিভাগের উপজেলা চেয়ারম্যানদের মধ্যে সেরা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি। এতে এক চতুর্থাংশ অসন্তুষ্ট হয়েছে। মেয়র মিজান আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছেন।”

সদর পিএস অফিসার ইনচার্জ মাসুক আলী জানান, শহরে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।



LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here